বামুটিয়া গ্রাম মেহারী ইউনিয়ন

0
100
মেহারী ইউনিয়ন

কসবা উপজেলার বামুটিয়া গ্রামের নামকরণের ইতিকথা: এস এম শাহনূর

কসবা উপজেলার বামুটিয়া গ্রামের নামকরণের ইতিকথা: এস এম  শাহনূর

বামুটিয়া নামকরণের গৌরবময় ভাবার্থ অনুধাবন করতে হলে আপনাকে আমাদের মানবতার কবি কাজী নজরুল ইসলামের “কুলি-মজুর” নামক কবিতার মর্মার্থ মর্মে মর্মে উপলব্ধি করতে হবে।ডুব দিতে হবে ভাবনার মহাসাগরে।আজকের শহুরে জীবনে অভ্যস্ত অতি আধুনিক নাগরিকদের ৯৮℅লোকই একসময় গ্রামের বাসিন্দা ছিল।এমন কি আমি লেখকও বল্লভপুর গ্রামের বাঁশের বেড়ার ঘরে মাটির মেঝেতেই জন্ম গ্রহণ করেছি।অদের খালের কাদাজলে,জুগি পুকুরের শ্যাওলা ভরা পানিতে লুটোপুটি খেয়ে কেটেছে শৈশব ও কৈশোর।আমার দৃঢ বিশ্বাস “কুলি-মজুর” নামক কবিতায় সেরা শব্দ গুলোর অন্যতম একটি শব্দ আজকের বামুটিয়া গ্রামবাসীকে দিবে নতুন এক পরিচয়।এই পরিচয় গর্বের, এই পরিচয় মানবিকতার, এই পরিচয় অহংকারের। কোন সেই শব্দ যা যুগযুগ ধরে বামুটিয়া নামের সুরভী বিলিয়েছ চলেছে?

➤”আসিতেছে শুভদিন,
দিনে দিনে বহু বাড়িয়াছে দেনা শুধিতে হইবে ঋণ!
হাতুড়ি শাবল গাঁইতি চালায়ে ভাঙিল যারা পাহাড়,
পাহাড়-কাটা সে পথের দু’পাশে পড়িয়া যাদের হাড়,
তোমারে সেবিতে হইল যাহারা মজুর, #মুটে ও কুলি,
তোমারে বহিতে যারা পবিত্র অঙ্গে লাগাল ধূলি;
তারাই মানুষ, তারাই দেবতা, গাহি তাহাদেরি গান,
তাদেরি ব্যথিত বক্ষে পা ফেলে আসে নব উত্থান!
—————————————————


————————————————–
একের অসম্মান
নিখিল মানব-জাতির লজ্জা-সকলের অপমান!
মহা-মানবের মহা-বেদনার আজি মহা-উত্থান,
উর্ধ্বে হাসিছে ভগবান, নীচে কাঁপিতেছে শয়তান!”

চলুন আরো কিছু জানি।
➤”আমি কবি কামারের
আর কুমোরের
আমি কবি যত #মুটে
মজুরের।”
—প্রেমেন্দ্র মিত্র
[কালি কলম পত্রিকায় প্রকাশিত]

➤১৯৭১ সালে মহান মুক্তিযুদ্ধের অগ্নিঝরা দিন গুলোতে রথীন্দ্রনাথ রায়ের কন্ঠে গাওয়া জাগরণের গান–
চাষাদের, #মুটেদের, মজুরের ।।
গরিবের নিঃস্বের ফকিরের
আমার এ দেশ সব মানুষের, সব মানুষের।।
(–খাদেমুল ইসলাম বসুনিয়া)

✪ মুটিয়া, মুটে এর বাংলা অর্থ:

★ব্যুৎপত্তিঃ [বাং. মোট + ইয়া এ]

মুটিয়া, মুটে একটি বিশেষ্য পদ।
এর বাংলা অর্থ হলো – মজুর,মোট বহনকারী,দরিদ্র শ্রমিক,দরিদ্র শ্রমজীবী মানুষ (‘আমি কবি কামারের মুটে-মজুরের’: প্রেমেন্দ্র)

➤এক নজরে বামুটিয়া গ্রাম:

গ্রামের আয়তন (প্রায়): ১০৪ বিঘা
(দৈর্ঘ্য ১৫০০ ফুট × প্রস্থ ১০০০ ফুট)
মোট জনসংখ্যা (প্রায়): ১০০০ জন, .
মোট ভোটার: ৪৬০ জন,
পুরুষ ও মহিলার অনুপাত ৫৫ঃ৪৫
প্ররাসীর সংখ্যা =৫৫ জন
শিক্ষার হার=৮০%
দারিদ্রতার হার=১২%
মুসলিম=১০০℅

➤এছাড়া এখানে রয়েছে-
২ টি মসজিদ
(বামুটিয়া বাইতুম আমান মসজিদ।অন্যটি বামুটিয়া ভূঁইয়া বাড়ীর বাইতুল উমর মসজিদ)।

২ টি কবর স্থান
(একটি বামুটিয়া গ্রামের কবরস্থান অন্যটি বামুটিয়া ভূঁইয়া বাড়ী পারিবারিক কবরস্থান)।

➤পেশাঃ
কৃষিজীবি=৪৫%
প্রবাসী =০৫%
চাকুরীজীবি =১০%
ব্যবসায়ী =১৫%
অন্যান্য =২৫%

➤গোষ্ঠী বা গোত্র গুলোর নাম:
ভুঁইয়া বাড়ি,
মৌলভি বাড়ি,

➤সীমানাঃ
✪ উত্তরে- খেওড়া গ্রাম,
✪ পূর্বে- খাড়েরা ইউপির সোনারগাঁও,
✪ দক্ষিণে-খাড়েরা ইউপির বুগীর গ্রাম,
✪ পশ্চিমে -চৌবেপুর গ্রাম,

➤বামুটিয়া থেকে সৈয়দাবাদঃ
সৈয়দাবাদ গ্রামের কৃতি সন্তান বিশিষ্ট শিক্ষানুরাগী ও উপজেলা আওয়ামী লীগের নিবেদিত প্রাণপুরুষ জনাব,মরহুম এবি ছিদ্দিক প্রায় পাঁচ দশক আগে ১৯৬৯ সালে এলাকায় শিক্ষার আলো ছড়িয়ে দিতে “সৈয়দাবাদ আদর্শ মহাবিদ্যালয়” নামে একটি কলেজ প্রতিষ্ঠা করেন।যা আজ সৈয়দাবাদ সরকারি কলেজ নামে পরিচিত। তৎকালীন সময়ে এটিই ছিলো উপজেলার একমাত্র কলেজ। বিশেষ সূত্র থেকে জানা যায় ওনার পূর্ব পুরুষরা এক সময় বামুটিয়া থেকে সৈয়দাবাদ গ্রামে চলে আসেন।

➤বিশেষ ব্যক্তিবর্গের নামের তালিকা:
* পীরে কামেল হযরত মাওলানা রুহুল আমিন।
* মরহুম জৈনুদ্দিন ভূঁইয়া
[তিনি বামুটিয়া গ্রাম থেকে বহুকাল আগে শিমরাইল গ্রামে চলে আসেন।তাঁর পুত্র মরহুম রহিম উদ্দিন ভূঁইয়া। যিনি মেহারী ইউ’পির প্রেসিডেন্ট ছিলেন।তাঁর পুত্র মরহুম সলিমউদ্দীন ভূঁইয়া।তাঁর পুত্র হাজী মোঃ শাহজাহন ভূঁইয়া (সাজু মেম্বার)]

* মরহুম তাজুল ইসলাম (ডিলার)
* মরহুম আব্দুর নূরু মেম্বার
* মরহুম আব্দুল গণি মাষ্টার
* মরহুম আব্দুল জলিল মিয়া।

➤বামুটিয়া গ্রামের শিক্ষক ও শিক্ষানুরাগীদের নামের তালিকাঃ

✪ অধ্যাপক মোঃ জাহাঙ্গীর আলম
(বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়, বুয়েট )
✪ মাওলানা আব্দুল অহাব ভূঁইয়া
( সাবেক হেড মাওলানা কুটি অটল বিহারী উচ্চ বিদ্যালয়)।
✪ মরহুম আব্দুল গনি মাষ্টার ভূঁইয়া
(সাবেক ইংরেজি শিক্ষক দেলি পাতাইসার উচ্চ বিদ্যালয়)।
✪ মরহুম নায়েব আলী মাষ্টার ভূঁইয়া
✪ মরহুম আব্দুল হেকিম মাষ্টার ভূঁইয়া

➤বামুটিয়া গ্রামের বীর মুক্তিযোদ্ধাদের নামের তালিকাঃ
* বীর মুক্তিযোদ্ধা হাজী মোঃ সেলিম
(সাবেক সদস্য সচিব কসবা উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ),
* বীর মুক্তিযোদ্ধা অবঃ পাপ্ত সুবেদার মরহুম শরাফুল ইসলাম (হুমায়ুন),
* বীর মুক্তিযোদ্ধা অবঃ পাপ্ত সেনাবাহিনী মরহুম আব্দুল আওয়াল,
* বীর মুক্তিযোদ্ধা হাজী মোঃ আবু হানিফ,
* বীর মুক্তিযোদ্ধা আবু নাছের,
* বীর মুক্তিযোদ্ধা মফিজ উদ্দিন (সুরুজ মিয়া),
* বীর মুক্তিযোদ্ধা হাজী আবু হাসান,
* বীর মুক্তিযোদ্ধা হাজী আবু ছায়েদ মিয়া।

➤সামাজিক ও সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্বঃ
* জনাব, মোঃ ফজলুল হক নান্নু মিয়া
* জনাব, মোঃ ফোরকান আহম্মদ বাদল মিয়া
* জনাব, মোঃ লেলিন মিয়া
* জনাব, হাজী মোঃ শামসুল আলম
(আমেরিকান প্রবাসী)
* জনাব, মোঃ আবু কাউছার ( ফুড অফিসার )
* জনাব, মোঃ আনিছুর রহমান প্রমুখ।

➤তারুণ্যের প্রিয়মুখঃ
✪ এম আই মনির ভূঁইয়া
[তিনি বিভিন্ন সামাজিক, রাজনৈতিক ও সাংস্কৃতিক কর্মকাণ্ডে প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে গ্রামের উন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছেন।এছাড়া এলাকার মানুষের মতামত নিয়ে যেটি জানতে পারি, বামুটিয়া গ্রামের সকলের সহযোগিতা নিয়ে বর্তমানে বামুটিয়া গ্রাম কে কসবা উপজেলার সকলের কাছে পরিচিত করানোর জন্য যিনি বিভিন্ন ভাবে ব্যানার ফেস্টুনের মাধ্যমে গ্রামের নামটিকে হাইলাইট করার চেষ্টা করে যাচ্ছেন তিনি বামুটিয়া গ্রামের এই কৃতি সন্তান জনাব এম আই মনির ভূঁইয়া।]

➤এছাড়াও বামুটিয়া গ্রামে সেনাবাহিনীর মেজর, বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রফেসর , ডাঃ , ইঞ্জিনিয়ার বাংকের চাকুরী জীবি, সরকারী বেসরকারী ভাবে বিভিন্ন স্হানে বহু কৃতি সন্তান সন্মানের সাথে চাকুরী রত অবস্থায় রয়েছেন বলে জানা যায়।এই গ্রামের পরিবেশ খুবই ভাল। সামাজিক ভাবে একে অপরের সাথে ভালভাবে মিলেমিশে চলেন এবং একে অপরের বিপদে আপদে উপকার করে থাকেন।।

সুপ্রিয় পাঠক ইতোমধ্যেই বামুটিয়া গ্রামের অনেক তথ্য আমরা নিশ্চয়ই জেনে গেছি।এবার চলুন মনে মনে বাংলা ফোক গানের এক দুটো লাইন গেয়ে নিই।

#বামন হইয়া চাঁদের পানে হাত বাড়াইলাম
আমি একী করিলাম তারে মন সপিলাম।
অথবা
#বামন হইয়া চাঁদের পানে হাত বাড়াইওনা
বন্ধু আমার আসমানের চাঁদ ধরা দিলিনা।

ত চালুন এবার #বামন শব্দ সম্পর্কে কিছু জ্ঞান আহরণ করি।
➤বামন শব্দটিকে যখন বিশেষ্য পদ হিসাবে বুঝায় তখন বাংলা অভিধানে এর অর্থ দাঁড়ায় —
১. বিষ্ণুর পঞ্চম অবতার/বিষ্ণু পঞ্চম অবতার বামনরূপে দৈত্যরাজ বলিকে দমন উদ্ধার করেন;[১] ২. পন্ডিতবিশেষ;
৩. দক্ষিণদিকের হস্তী।

➤ আবার একই শব্দ বামন শব্দটিকে যখন বিশেষণ পদ হিসাবে বুঝায় তখন বাংলা অভিধানে এর অর্থ দাঁড়ায় –
অস্বাভাবিক রকমের বেঁটে লোক (বামন হয়ে চাঁদ ধরতে যাওয়া)।

➤ব্যুৎপত্তি: [সং. √ বামি (√ বম্ + ণিচ্) + অন]।

অন্যদিকে ব্রাহ্মণ বলতে বুঝতে হবে–
১. হিন্দু চতুর্বর্ণের শ্রেষ্ঠ বর্ণ (পূজায় বামুনের অধিকার);
২. পুরোহিত প্রভৃতি;

[প্রাকৃ. বম্ভণ < সং. ব্রাহ্মণ]।

➤বামুটিয়া নামকরণ:
এ জনপদে কোন এক সময় বামন (অতি কায় বেঁটে) আকৃতির এক শক্তিশালী মুটে/মুটিয়ার আবাস ছিল বলে জানা যায়। তাঁর সততা ও কঠোর কর্মনিষ্ঠার কারণে লোকমুখে বামন এবং মুটিয়া শব্দদ্বয় সংকোচিত হয়ে বামুটিয়া নাম ধারণ করে বলে ধারণা করা হয়।

➤পাদটীকাঃ
[১] ↑ মৎস্যপুরাণ । ২৪৪-২৪৬ অধ্যায়। বেদব্যাস। অনুবাদ পঞ্চানন তর্করত্ন। নবভারত পাবলিশার্স। ১৪০৬।
[২] ↑ নামকরণের ইতিকথা।। এস এম শাহনূর
[৩] ↑ মাঠ পর্যায়ে ব্যক্তিগত সংগ্রহশালা।
[৪] ↑ কবি নজরুল রচনাবলী।
[৫] ↑ বাংলা সাহিত্যের আঞ্চলিক অভিধান।

💻Copyright@ এস এম শাহনূর
smshahnoor82@gmail.com
(তথ্য সংগ্রাহক,লেখক ও গবেষক)

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here